যে কারনে আপনার মুখে দুর্গন্ধ হয়

টোয়েন্টি ফোর নিউজ একাত্তর :নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ? বিভিন্ন ব্র্যান্ডেড টুথপেস্টে দিনে দু’বার করে দাঁত মেজেও ফল পাচ্ছেন না? সাবধান। আপনার নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধের পিছনে রয়েছে ডেঞ্জারাস সব রোগ।

ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, কিডনি ফেলিওর, লিভারের সমস্যার জন্যই মুখে দুর্গন্ধ হয়। মাড়ির রোগ, অ্যালার্জি, লিভারের রোগ, কিডনি ফেলিওর, ক্যানডিডা আলবিকানস এই সব রোগের সাইড এফেক্ট হলে মুখে দুর্গন্ধ হয়।

বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকরা বলছেন মেনে চলতে হবে ওরাল হাইজিন। মৌসুমি তাজা ফল ও সবজি চিবিয়ে খেতে হবে। ক্যাফেইন প্রয়োজন হলে কফির বদলে চা খাওয়ার পরামর্শ। চিনিহীন চুইং গাম চেবানো যেতে পারে।

দই যেমন হজমে সাহায্য করে, ঠিক তেমনই মুখের দুর্গন্ধ দূর করতেও সক্ষম। ভিটামিন সি-র পর্যাপ্ত জোগান প্রয়োজন। তাই বিভিন্ন ধরনের লেবু খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিত্সকরা। সিগারেট বা জর্দা দেওয়া পান খাওয়ার অভ্যাসও ছাড়তে হবে।

জেনে নেওয়া যাক কী কারণে মুখে দুর্গন্ধ হয়-
-মুখের দুর্গন্ধ অ্যামোনিয়া ধরনের হলে বুঝতে হবে টাইপ ১ ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে। কারণ, দেহে ইনসুলিনের অভাব।

-যদি নিঃশ্বাসে দিনের প্রত্যেক সময়ে সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর যেমন গন্ধ থাকে, তেমন গন্ধ পাওয়া যায়, তাহলে বুঝতে হবে মুখের ভেতর স্যালিভা শুকিয়ে গিয়ে ব্যাকটেরিয়া উৎপন্ন হচ্ছে।

-সাইনাসের সমস্যা থাকলে নাকে ও গলায় মিউকাস জমে থাকে। তা থেকে দুর্গন্ধ তৈরি হয়। অ্যালার্জির কারণেও মুখে দুর্গন্ধ তৈরি হয়।

-নিঃশ্বাসে যদি টক টক গন্ধ পাওয়া যায়, তাহলে বুঝতে হবে খাবারে প্রোটিনের মাত্রা অতিরিক্ত বেশি হয়েছে। কারণ, কিটোনের ভাঙন।
-যদি নিঃশ্বাসে আঁশটে গন্ধ হয়, তাহলে বুঝতে হবে কিডনির সমস্যা রয়েছে। কিডনি ঠিকভাবে কাজ না করলে নাইট্রোজেন তৈরি হয়, যা দুর্গন্ধের জন্য দায়ী।

-নিঃশ্বাসে পচে যাওয়া মাংসের দুর্গন্ধ পেলে বুঝতে হবে, টনসিলের সমস্যা রয়েছে। টনসিলের কারণে সালফার উত্পন্নকারী ব্যাকটেরিয়া জন্ম নেয়। যে কারণে দুর্গন্ধ তৈরি হয়।

– বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লাং ক্যান্সারের কারণেও মুখে দুর্গন্ধ তৈরি হয়। লিভারের সমস্যাতেও মুখে দুর্গন্ধ তৈরি হয়। নিয়মিত দাঁত মেজেও এই দুর্গন্ধ যায় না।

-ক্যানডিডা আলবিকানসের কারণেও মুখে দুর্গন্ধ তৈরি হয়। জিভে যারা কোনও অলঙ্কার পরেন, তাঁদের এই সমস্যা বেশি হয়।

-ক্রনিক অম্বলের কারণে মুখে দুর্গন্ধ তৈরি করে। আলসার এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকলে অনেক সময় পাইলেরিয়ার সংক্রমণ হয়। তা থেকে মুখে দুর্গন্ধ।

-রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকলে অনেক সময়ই মুখ শুকিয়ে যায়। এই ধরনের মেডিক্যাল সমস্যার অন্যতম হল জগরেনস সিনড্রোম।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *