ব্রেকিং নিউজ

বগুড়ায় ২৪০০ পিচ ইয়াবাসহ শাহীনুর ওরফে জিতু গ্রেফতার

২৪নিউজ৭১  ডেস্কঃ টিম ডিবি বগুড়ার অভিযানে ২ হাজার ৪ শত পিচ ইয়াবা সহ কাহালুর মুরইল হতে কুখ্যাত মাদক ব্যাবসায়ি একাধিক মাদক মামলার আসামি শাহীনুর ওরফে জিতু (৩৩) কে গ্রেফতার করেছে। জিতু শহরের বাদুরতলা এলঅকার ফজলুর রহমান এর ছেলে।

ডিবি পুলিশের পক্ষথেকে জানাগেছে, কাহালু থানা এলাকায় মাদকদ্রব্য উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করাকালীন শনিবার (০৫/১০/২০১৯) তারিখ ৭ টার দিকে সদর থানাধীন গােদারপাড়া বাজারে অবস্থানকালে গােপন সূত্রে সংবাদ পায় যে, একজন মাদক ব্যবসায়ী মােটরসাইকেলের

সীটের নীচে করে ইয়াবা ট্যাবলেট বহন করে বগুড়া কাহালু থানাধীন সমন্তাহার পােড়াপাড়া ষ্ট্যান্ডে জনৈক মােঃ রেজাউল করিম এর চায়ের দোকানের সামনে মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে। এমন খবরের ভিত্তিতে ডিবি টিম ওই এলঅকায় পৌছামাত্র ডিবি পুলিশ দেখে একজন ব্যক্তি মােটরসাইকেল স্টার্ট দিয়া চলে যাওয়ার চেষ্টাকালে তাকে
আটক করে তার ব্যবহৃত একটি পুরাতন লাল রংয়ের রেজি বিহীন JILING 80 মােটরসাইকেল, যাহার ইঞ্জিন নং 147FM*96012308* চেসিস নং

JH701*96007782* মােটরসাইকেলটির ছিট খুলে ছিটের নিচে বিশেষ কায়দায় রাখা কালাে কসটেপ দ্বারা মােড়ানাে ১২টি ছােট নীল রংয়ের এয়ার টাইট প্লাষ্টিকের প্যাকেটে ২০০ পিচ করে সর্বমােট ২৪০০ পিচ লালচে রংয়ের ইয়াবা ট্যাবলেট , ওজন ২৪০(দুইশত চল্লিশ) গ্রাম, যাহার প্রতিটি ইয়াবা ট্যাবলেটের গায়ে ইংরেজীতে WY লেখা আছে এবং ধত আসামীর দেহ তল্লাশী করে তার পরিহিত ফল প্যান্টের সাইট পকেট হতে একটি SYMPHONY B22 মডেলের মােবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। আসামীকে উক্ত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলি সম্পকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে উক্ত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলি সে মাদক ব্যাবসায়ীদের নিকট বিক্রয় করার উদ্দেশ্য উক্ত স্থানে অবস্থান করছে বলিয়া জানায়।

উল্লেখ্য যে, ধৃত আসামীর বিরুদ্ধে নিম্নোক্ত মামলা রুজু আছে-
১। (2THFW) বগুড়া এর বগুড়া সদর থানার এফ আই আর নং-২৯, তারিখ- ০৭ অক্টে, ২০১৮; জি আর ন ১২৬৯/২০১৮, তারিখ- ০৭ অক্টে, ২০১৮ সময়- সময় ১৪.৫০ মিঃ ধারা- ১৯(১) এর ৯(খ)/২৫ ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত আইন ; , এই মামলায় সে অভিযােগ পত্রে অভিযুক্ত (এজাহারনামীয়) –

২। (5U2Y) বগুড়া এর বগুড়া সদর থানার এফ আই আর নং-৩৬, তারিখ- ২৬ জানু, ২০১২; জি আর নং-৩৬/১২, তারিখ- :
জানু, ২০১২; সময়- ধারা- ১৯(১)এর১(ক)/১৯ (৪) ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ; , এই মামলায় সে এজাহা
অভিযুক্ত।

উক্ত ধৃত ; আসামী দীর্ঘদিন যাবৎ পুলিশ প্রশাসনের চক্ষু ফাঁকি দিয়া সুকৌশলে অবৈধ মাদকদ্রব্য ইয়া ট্যাবলেটের ব্যবসা করে আসছে। যাহার ফলে এলাকার যুবসমাজ ধ্বংসের পথে ধাবিত হচ্ছে। আসামী জামি মুক্তি পাইলে পুনরায় অবৈধ মাদকদ্রব্যর ব্যবসা চলমান রাখিবে অথবা চিরতরে আত্মগােপন হইবার সম্ভাবনা রহিয়া, মামলার তদন্তু অব্যাহত আছে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *