ব্রেকিং নিউজ

বগুড়ার শেরপুরে কলেজ ছাত্রী অপহরণ মামলায় সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি রিপন আটক

বগুড়ার শেরপুরে কলেজ ছাত্রী অপহরণ মামলায় সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি রিপন আটক

আব্দুল মোমনি, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ
বগুড়ার শেরপুর থানা পুলিশ অপহরণ মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী ছাত্রলীগ নেতা ইকবাল হাসান রিপন (৩৫) কে গতকাল রোববার বিকালে পৌনে ৪টায় শহরের ধুনট মোড় টিভিএস শোরুম এর কর্নার থেকে আটক করেছে শেরপুর থানা পুলিশ।
জানা যায়, ধুনট উপজেলার পৌর শহরের পশ্চিম ভরনশাহী গ্রামের গোলাম রহমানের ছেলে ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইকবাল হাসান রিপন ১ বছর আগে এক কলেজ ছাত্রীকে অপহরণ করে। এ ঘটনায় ধুনট থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের হয়। সেই মামলায় হাজিরা না দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে ওয়ারান্টে হয়। গতকাল রোববার বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে শেরপুর পৌর শহরের ধুনটমোড় এলাকায় ঘোরাফেরা করছিল। এসময় শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম গোপন সংবাদ পেয়ে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।
এ প্রসঙ্গে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবীর বলেন-আটককৃতের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলার ওয়ারেন্ট থাকায় তাকে আটক করা হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, পশ্চিম ভরনশাহী গ্রামের মাসুদ করিম লিটুর কন্যা মোস্তাফিয়া মিমকে (২৩) প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ছাত্রলীগ নেতা রিপন উত্যক্ত করে আসছিল। কিন্তু মিম তার প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় রিপন ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। গত বছরের জুন মাসে বগুড়া সরকারি মজিবুর রহমান মহিলা কলেজের অনার্স (ইংরেজী বিভাগ) শেষ বর্ষের ছাত্রী মিম ছুটিতে বাড়ীতে চলে আসে। খবর পেয়ে ৪ জুন (সোমবার) সন্ধ্যা ৭টায় ছাত্রলীগ নেতা রিপন ১০/১১জন লোক নিয়ে মাসুদ করিম লিটু’র বাড়ীতে প্রবেশ করে। পরে অস্ত্রের মুখে পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে কলেজ ছাত্রী মোস্তাফিয়া মিমকে অপহরন করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মাসুদ করিম লিটু থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ ৯ঘন্টা পর সোনারগাঁ গ্রাম থেকে ওই কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মাসুদ করিম লিটু বাদী হয়ে ধুনট থানায় ইকবাল হোসেন রিপনকে প্রধান আসামী করে ৪জন নামীয় ও অজ্ঞাত ৭/৮জনের বিরুদ্ধে অপহরন মামলা মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার অপর আসামীদের মধ্যে পশ্চিম ভরনশাহী গ্রামের ইউসুফ হারুন সুলতানের ছেলে আব্দুল্লাহ হারুন বাবু, মুসলিম আকন্দের ছেলে জামাল উদ্দিন ও চালাপাড়া গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে ইউনুস আলী বর্তমানে জামিনে রয়েছে। কিন্তু অপরহরন ঘটনার পর থেকেই পুলিশের চোখে পলাতক ছিল ইকবাল হোসেন রিপন। তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। ওই পরোয়ানামুলে রোববার বিকেল পৌনে ৪টায় শেরপুর শহরের ধুনট মোড় এলাকার টিভিএস শো-রুমের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগ নেতা রিপনের বিরুদ্ধে ধুনট থানায় অপরহরন মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে। সেই পরোয়ানামুলে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধুনট থানা পুলিশের কাছে তাকে সোপর্দ করা হবে।

ধুনট থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, কলেজ ছাত্রী অপহরন মামলার প্রধান আসামী ছাত্রলীগ নেতা রিপনের গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে। সে দীর্ঘদিন যাবত পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে চলছিল। কৌশলে তাকে শেরপুরের ধুনট মোড় এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *