ব্রেকিং নিউজ

নাটোরে কথিত মোশাররফ বাহিনীর বিরুদ্ধে জমি দখলসহ নানামুখি সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগে

নাটোর প্রতিনিধি।।
নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নওপাড়া গ্রামে স্থানীয় মোশাররফ বাহিনীর বিরুদ্ধে ঈদগাহ মাঠ ও মাদ্রাসার জমি দখল, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের পুকুরের মাছ লুট,গাছের ফল লুট, আবাদী জমি দখল আর গরু বিক্রির টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।
এঘটনায় প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবার।

রবিবার দুপুরে নাটোর ইউনাইটেড প্রেসক্লাব হলরুমে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধ তোজাম্মেল হক।

সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে তারা সরকার ও প্রশাসনের আশু পদক্ষেপ কামনা করেছেন।
তবে অভিযুক্তরা নিজেদেরকে সম্পূর্ণ নির্দোষ দাবী করে অভিযোগকে ষড়যন্ত্রমূলক বলে দাবী করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধা তোজাম্মেল হক দাবী করেন, স্থানীয় মোবারক আলীর ছেলে মোশাররফ ও ওয়াকিল নিজেদের একটি বাহিনী সৃষ্টি করে দীর্ঘদিন থেকেই এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছেন।

মোশাররফ একই এলাকার জব্বার আলীর মেয়েকে ধর্ষনের দায়ে একবার জেল খেটে বের হয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। ওই বাহিনী একই এলাকার মোহর আলীর বাড়িতে ভাংচুর,লুটপাট,পুকুরের মাছ বিক্রি ও আবাদি জমি দখল করে। মোশাররফের ভাই ওয়াকিল জালিয়াতির মাধ্যমে হাইকোর্টের আদেশ তৈরী করে মোহর আলীর পুকুর ও সম্পত্তি দখলে নেয়।

এব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধ মোহর আলীর মামলা এখন বিচারাধীন। মোশাররফ বাহিনীর থাবা থেকে রক্ষা পাননি তার পরিবারও দাবী করে তোজাম্মেল হক জানান,মোশাররফ বাহিনী তার বসতবাড়ি ও বাড়ি সংলগ্ন লিচু,সুপারি ও আম বাগান এবং পুকুর জবর দখল করে। পুকুরের মাছ বিক্রি করে ¦ং বাগানের বিভিন্ন ফলের ক্ষতি করে।

তার(তোজাম্মেল) আপন ভাতিজা মুকুল গরু বিক্রি করে বাড়ি ফেরার পথে তারা তাকে আটকিয়ে টাকা কেড়ে নেয়। এসময় তারা মুকুলকে বস্তায় পুরত থাকলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। শুধু তাই নয়, তার(তোজাম্মেলের)আপন ভাই মোহাম্মদ আলীর ২ বিঘা সম্পত্তি তারা দখলে নিয়েছে।

প্রেসকনফারেন্সে উপস্থিত নওপাড়া বগুড়াপাড়া ঈদগাহ মাঠ কমিটির সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান জানান, মোশাররফ বাহিনী ঈদ গাহ মাঠের এক অংশ দখলে নিয়েছে। এতে আসন্ন ঈদের জামাতে নামায পড়া নিয়ে মুসল্লিরা রয়েছে বেকায়দায়।

শুধু তাই নয়, এলাকার জনৈক হাকিম একটি মাদ্রাসা করার জন্য ৪ শতক জমি দান করলে সে জমিতেও মোশাররফ বাহিনী তাদের অনুসারী একজনকে বাড়ি করিয়ে দিয়েছে।

তারা অত্যন্ত প্রভাবশালী হওয়ায় কোথাও বিচার পাচ্ছেন না দাবী করে অনতিবিলম্বে এসকল ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত শেষে এই বাহিনীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে এলাকায় শান্তির বসবাসের পরিবেশ নিশ্চিতের জন্য তারা সরকার ও প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

বিষযটি সম্পর্কে যোগাযোগ করা হলে মোশাররফ হোসেন ও ওয়াকিল সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে এসব তাদের বিরুদ্ধে সাজানো ষড়যন্ত্র উল্লেখ করে জানান, তোজাম্মেলের এক ছেলে মৌলভিবাজারের ওসি বিধায় তাদের অত্যাচারেই তারা অতিষ্ট।

তোজাম্মেল মাষ্টার বাহিনীর অত্যাচারেই তারা অতিষ্ট দাবী করে তারা দাবী করেন, সম্প্রতি তোজাম্মেল অনুসারীরা তানিয়া পারভিন তানজিলা নামে তার এক বোন ও অপর দুই ভাইকে মারপিট করেছে। তারা এখন রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এক প্রশ্নের জবাবে মোশাররফ ও ওয়াকিল দাবী করেন,ঈদগাহ এলাকায় তাদের মিল রয়েছে। ওই মিলটিও তোজাম্মেল অনুসারীদের কারণে এক মাস যাবৎ তালাবদ্ধ।

আর মাদ্রাসার জায়গার ব্যাপারে এলাকায় মিটিং হয়েছে। খুব শিঘ্রই মাদ্রাসার জমি ফিরিয়ে দেবে ওখানে বসবাসকারী-এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে এলাকার মিটিংয়ে।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে গুরুদাসপুর থানার ওসি মোজাহারুল ইসলাম জানান, উভয়পক্ষই দীর্ঘদিন থেকে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে বিবাদমান।

উভয়পক্ষেই মামলা রয়েছে। বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্ত শেষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *