ব্রেকিং নিউজ

নাটোরের নলডাঙ্গা থেকে মা ও শিশু সন্তানের মৃতদেহ উদ্ধার

নাটোর প্রতিনিধি.

নাটোরের নলডাঙ্গা থেকে মা শারমিন বেগম ও দুই বছরের শিশু সন্তান আব্দুল্লার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার সকালে উপজেলার বাশিলা উত্তরপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ী থেকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় শারমিনের মৃতদেহ এবং শিশু আব্দুল্লার মৃতদেহটি বাড়ীর পাশের পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়। নিহত শারমিন বেগম ও আব্দুল্লা ওই এলাকার মাহামুদুল হাসান মুন্নার স্ত্রী ও সন্তান।

নলডাঙ্গা থানার ওসি শফিকুর রহমান  বলেন, উপজেলার বাশিলা উত্তরপাড়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে মাহামুদুল হাসানের সাথে একই উপজেলার হরিদাখলসি গ্রামের শারমিন বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই মাহামুদুল ঢাকার একটি গার্মেন্টসে চাকুরী করে এবং সেখানেই বসবাস করেন। মাঝে মাঝে ছুটিতে বাড়ীতে আসেন।

এ সময় তার স্ত্রী ও সন্তান তার বাবা ও মা সহ পরিবারের অন্যান্যদের সাথেই থাকতেন। গতরাতে খাওয়া দাওয়া শেষে শারমিন বেগম তার শিশু সন্তান আব্দুল্লাকে নিয়ে তাদের শোবার ঘরে চলে যায়। পরে সেহেরি করার সময় পরিবারের লোকজন তাকে ডাকতে গেলে তার ঘরের ভিতরে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার মৃতদেহটি পড়ে থাকতে দেখে।

এ সময় পরিবারের সদস্যদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে এবং শিশু আব্দুল্লার খোঁজ করে। পরে ভোর ৬টার দিকে বাড়ীর পাশের একটি পুকুর থেকে শিশু আব্দুল্লার মৃতদেহটি উদ্ধার করে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে চুরি বা ডাকাতির উদ্দেশ্যে কেউ ঘরে ঢুকে। এ সময় শারমিন বেগম তা দেখতে পেলে তাকে গলায় ওড়া পেঁচিয়ে শ্বাষ রোধ করে হত্যা করে এবং পালিয়ে যাওয়ার সময় শিশু আব্দুল্লকে পুকুরে ফেলে হত্যা করে। তবে ঘর থেকে কোন কিছু খোয়া গেছে কিনা তা এখনও জানা যায়নি। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

এদিকে লাশ উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতারে মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *