ব্রেকিং নিউজ

নন্দীগ্রামে পাষন্ড স্বামীর নির্যাতনে চোখ হারাতে বসেছে স্ত্রী

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে যৌতুকের দাবিতে পিংকি রানী (২০) নামের এক গৃহবধূকে মারপিট করেছে তার স্বামী রমেন কুমার (২৮)। এতে পিংকির দুটি চোখ নষ্ট হতে বসেছে। সে উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের দাসগ্রাম গ্রাম হিন্দু পাড়ার রবিন চন্দ্রর মেয়ে। এ ঘটনায় পুলিশ শুক্রবার দুপুরে স্ত্রী নির্যাতনকারী স্বামী রমেন কুমার (২৮) ও তার মা কে আটক করেছে।

পিংকির কাকা বাবলু জানান, ২০১৮ সালে উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের দাসগ্রাম গ্রাম হিন্দু পাড়ার মৃত নরেশ চন্দ্রের ছেলে রমেন কুমারের সাথে পিংকির বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুক বাবদ ২ লাখ ২০ হাজার টাকা দেয়া হয়। এরপর থেকে আরও টাকার লোভ হয় রমেনের। আর একারণেই স্ত্রী পিংকির উপর কারণে অকারণে নির্যাতন চালায় সে। এরই এক পর্যায়ে গত বুধবার রাতে বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে বলে পিংকিকে। কিন্তু সে অস্বীকৃতি জানালে তাকে বেদম মারপিট করা হয়। এতে তার দুই চোখে মারাত্মক আঘাত লাগে। যার কারণে তার চোখ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার সকালে ঘটনা টি জানার পর আমরা প্রতিবেশীদের জানাই। তারা বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পিংকির স্বামী রমেন ও তার শ্বশুরীকে থানায় নিয়ে যায়।

এবিষয়ে নন্দীগ্রাম থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, গৃহবধু পিংকিকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এবং তার স্বামী ও শ্বাশুড়ী পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *