আজ বাম দলের হরতাল

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বুধবার রাজধানীতে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত হরতাল। সাতটি বাম রাজনৈতিক দল নিয়ে গঠিত গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা ও সিপিবি-বাসদ যুগপৎভাবে এ কর্মসূচি দিয়েছে। এর পাশাপাশি তারা সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি করবে। সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ সিপিবি-বাসদ আহূত হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন দিয়েছে।

সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ এবং বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান এক বিবৃতিতে ঢাকা মহানগরীতে হরতাল এবং সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি সফল করার জন্য ঢাকাবাসীসহ দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ অফিস-আদালত, দোকানপাট, ব্যবসা-বাণিজ্যের কাজকর্ম বেলা ১২টার পর শুরু করার মাধ্যমে অযৌক্তিকভাবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ ও এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে হরতাল পালনের আহ্বান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে বলা হয় আগামীকাল ২৮ ফেব্রুয়ারি হরতালের সমর্থনে সকাল ৬টা থেকেই পল্টন, প্রেসক্লাব, গুলিস্তান, মতিঝিল এলাকায় রাজপথে থাকবেন সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। এছাড়া শাহবাগ, আজিমপুর, সাইন্সল্যাব, মোহাম্মদপুর, মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্ত্বর, বাহাদুর শাহ পার্ক, খিলগাঁও, তেজগাঁও, শান্তিনগর মোড়সহ ঢাকার বিভিন্ন স্থানে সিপিবি-বাসদ-এর নেতা-কর্মীরা হরতালের সমর্থনে মিছিল করবেন।

এদিকে সোমবার তোপখানা রোডস্থ নির্মল সেন মিলনায়তনে হরতাল প্রসঙ্গে গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, সবগুলো গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান লাভজনক অবস্থায় আছে এমন একটা পরিচিতিতে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির এই ঘোষণা কোনোভাবেই আসতে পারে না। এই মূল্যবৃদ্ধির ফলে সাধারণ মানুষের জীবনে সঙ্কট বৃদ্ধি পাবে। পরিবহন, কৃষি উৎপাদন ও শিল্পউৎপাদন চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তারা বলেন, আওয়ামী লীগ দেশে যে লুণ্ঠনের রাজত্ব কায়েম করেছে, তার তহবিল জোগাতেই এই মূল্যবৃদ্ধি। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার সমন্বয়ক ফিরোজ আহমেদে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অধ্যক্ষ আব্দুস সাত্তার, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাসদ (মার্কসবাদী) অন্যতম কেন্দ্রীয় ফখরুদ্দিন কবীর আতিক এবং সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা হামিদুল হক।

গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার আহ্বানে হরতালে গণসংহতি আন্দোলনের সর্বাত্মক সমর্থন দিয়ে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে জোনায়েদ সাকি বলেন, সরকার পকেট মারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। তিনি বলেন, হরতাল দেশের শিল্প-কৃষি বাঁচানোর হরতাল, উৎপাদনব্যবস্থা রক্ষার হরতাল। এ হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে জনস্বার্থে নিবেদিত হরতাল।

হরতালে আওতামুক্ত
হরতাল আহবানকারী দলগুলির পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে যে এসএসসি পরীক্ষার্থী এবং এই পরীক্ষার কাজে সংশ্লিষ্টদের হরতালের আওতামুক্ত রাখা এবং এই পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে সকলকে সহযোগিতা করা হবে। এছাড়াও ফায়ার সার্ভিস, এম্বুলেন্স, সংবাদপত্র ও প্রচারমাধ্যম, জরুরি বিদ্যুৎ-গ্যাস সংযোগের কাজ, হাসপাতাল ইত্যাদি হরতালের আওতামুক্ত থাকবে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে হরতালের সমর্থণে গতকাল পল্টন, প্রেসক্লাব এলাকায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে সোমবার সিপিবি-বাসদের পদযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া মিরপুর, ধানমণ্ডি, লালবাগ, খিলগাঁও, তেজগাঁও, সূত্রাপুর, শাহবাগ এলাকায় হরতালের সমর্থনে প্রচার মিছিল বের হয়। সেগুনবাগিচা, শিল্পকলা একাডেমি, দুদক অফিস, এজিবি অফিস, রাজস্ব ভবন, মতিঝিল এলাকায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করেন। এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাসদ-এর সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ, বাসদ-এর কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ, সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য সাজ্জাদ জহির চন্দন, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদ-এর কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতা মনিরা বেগম অনু, রাগিব আহসান মুন্না, জলি তালুকদার, হাসান তারিক চৌধুরী, লুনা নূর, বাসদ নেতা জুলফিকার আলী, প্রকৌশলী শম্পা বসু প্রমুখ।

পরিবহণ শ্রমিক নেতাদের নৈতিক সমর্থন
এদিকে সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ সিপিবি-বাসদ আহূত হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন জানিয়েছেন। গতকাল ফেডারেশনের অফিসে ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সিপিবি-বাসদ-এর নেতৃবৃন্দ মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়কালে পরিবহণ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ সিপিবি-বাসদ-এর দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন এবং হরতালের প্রতি নৈতিক সমর্থন জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাসদ-এর সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদ-এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ কাফি রতন, রাগিব আহসান মুন্না, বাসদ নেতা ইমাম হোসেন খোকন। পরিবহণ শ্রমিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি আব্দুর রহিম দুদু, আকতার হোসেন, আবুল বাহার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সজিব আলী, এম জেনারেল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের জাকির, দপ্তর সম্পাদক বাদল চৌধুরী, মজিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ কভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. কামরুজ্জামান, ঢাকা জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. ইউনুচ।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *